ত্রান তৎপরতা নিয়ে সাবেক সফল চেয়ারম্যান জননেতা মীর কাসিম চৌধুরীর বিবৃতি

ত্রান তৎপরতা নিয়ে সাবেক সফল চেয়ারম্যান জননেতা মীর কাসিম চৌধুরীর বিবৃতি

মোঃ সাহাব উদ্দিন, কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি :

Voic marinai পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি বলেন কোভিড-১৯,করোনা ভাইরাস ক্রমেই ভয়ংকর রুপ ধারন করে চলেছে,মানুষের আয়ের পথ দিন দিন সংকোচিত হয়ে আসছে,ইতিমধ্যে সারাদেশে অসংখ্য রাজনীতিবিদ, ডাক্তার- ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষাবিদ,আলেম ওলামা,সমাজ সেবক, গরীব দুঃখী মেহনতি মানুষ ইন্তেকাল করেছেন, তিনি মৃতদের রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং আক্রান্তদের সু-সাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।মহেশখালীর উপজেলার শ্রদ্ধেয়, রাজনৈতিক এবং প্রসাশনিক দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গের কাছে অনুরোধ করে তিনি বলেন,করোনার এই কঠিন সংকটময় পরিস্থিতিতে আমার শান্তিপূর্ণ কালারমার ছড়ার জনগণের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই,আমার এলাকার অধিকাংশ লোকজন দরিদ্র সীমার নিছে বসবাস করেন,লকডাউনের শুরু থেকে আজ পযন্ত অসহায় গরীব দুঃখী এবং মধ্যবিত্ত পরিবারের মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে ত্রান তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না যার ফলশ্রুতিতে অধিকাংশ মানুষ অত্যন্ত কষ্টের মধ্যে দিনাতিপাত করছে,সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে কালারমার ছড়ায় পর্যাপ্ত ত্রান-সাহায্য পৌছানোর জন্য আপনাদের কাছে আকুল আবেদন রইলো,অত্যন্ত দুঃখজনক বিষয় হলো সরকারি ত্রান সামগ্রী বিতরণ এবং তালিকা প্রনয়নের জন্য যাদের কে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তারা প্রতিনিয়ত বৈষম্য মুলক আচরণ করে যাচ্ছে,যা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন এবং দুর্নীতির সামিল,আমার কাছে নিয়মিত অভিযোগ আসছে কতিপয় প্রতিহিংসাপরায়ণ, নিচু মানসিকতার দায়িত্বজ্ঞানহীন লোকজন নির্বাচনী বিরোধ কে প্রতিনিয়ত সামনে নিয়ে আসেন,এবং বর্তমান চেয়ারম্যান কে ভোট না দেওয়ার অভিযোগে মানুষ কে প্রতিনিয়ত হুমকি ধামকি কুরুচিপূর্ণ ভাষায় গালমন্দ করেন,সরকারি কোন ধরনের সাহায্য সহযোগিতা দিবে না মর্মে উদ্ভট কথাবার্তা বলেন,কোন ধরনের প্রতিবাদ করলে দেখে নেওয়ার হুমকি প্রদর্শন করেন।ঝাপুয়ার ওয়ার্ড গুলোতে গরীব অসহায় মানুষের বসবাস বেশি অথচ খুবই অল্প সংখ্যক মানুষকে সরকারি ত্রাণ সহযোগিতা দেয়া হয়েছে এবং তালিকা প্রনয়নের ক্ষেত্রে চরম স্বজনপ্রীতি করা হয়েছে, যা অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘৃণিত কর্মকাণ্ড বলে আমি মনে করি, এহেন কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছি,তিনি বলেন, দেশের এরকম সংকটময় মূহুর্তে সবাই কে দল মতের উর্ধে ওটে মিলেমিশে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে,অন্যতায় যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতির জন্য আপনারা দায়ী থাকবেন,ভবিষ্যতে এহেন কর্মকাণ্ড পরিহার করে সবার জন্য সমান নাগরিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করার জন্য আহবান জানান।

তিনি তার ভক্তদের উদ্দেশ্য বলেন যাদের সামর্থ্য আছে তারা অসহায় মানুষের পাশে দাড়ান,এবং সবাই কে সরকারি সাস্থ্য বিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ জানান,তিনি আরো বলেন ডিজিটাল আইল্যান্ড খ্যাত মহেশখালী উপজেলার কালারমার ছডা ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনসাধারণের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে আমি দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ,তিনি সবসময় অন্যায়-অত্যাচার,জলুম-নির্যাতন এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে আপোষহীন ভুমিকা পালন করে যাবেন এবং কালারমার ছড়ার মানুষের অধিকার প্রতিষ্টার জন্য ,কালারমার ছড়ার মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য,ন্যায়পরায়ন সমাজ প্রতিষ্টার জন্য,সর্বোপরি মানুষের মৌলিক অধিকার (অন্য,বস্ত্র,বাসস্থান,শিক্ষা,চিকিৎসা) নিশ্চিত করার জন্য আজীবন লড়াই সংগ্রাম চালিয়ে যাবেন।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536