মধুপুর বহুমুখী মডেল টেকনিক্যাল ইন্সিটিটিউটের শতভাগ শিক্ষার্থী ফেল পাসের দাবীতে রাস্তা অবরোধ

মধুপুর বহুমুখী মডেল টেকনিক্যাল ইন্সিটিটিউটের শতভাগ শিক্ষার্থী ফেল পাসের দাবীতে রাস্তা অবরোধ

আ: হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলাধীন রানিয়াদ মধুপুর বহুমুখী মডেল টেকনিক্যাল ইন্সটিটিউটের ২০২০ইং সালে এস.এস.সি ও এস.এস.সি সমমানের পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী সকল শিক্ষার্থীর একটি বিষয়ে এবছর ৩১ মে ফলাফল প্রকাশে শতভাগ ফেল আসে। বৃহস্পতিবার (৪জুন) দুপুরে ফেল করা ওই ছাত্র, ছাত্রীরা মধুপুর ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কের মধুপুর মালাউড়ি নামক স্হানে রাস্তা অবরোধ করে তারা বিক্ষোভ করে। ঘটনা শুনে তাৎক্ষনিক মধুপুর থানা পুলিশ ঘটনা স্হলে গিয়ে তাদেরকে রাস্তা অবরোধ তুলে নিতে বললে ছাত্র ছাত্রীরা অবরোধ তুলে নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করতে করতে তারা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যায়। মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা জহুরা এর নির্দেশে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আ: রশিদ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যান একং ছাত্র ছাত্রীদের সাথে কথা বলে জানান তোমাদের ব্যাপারটা নিয়ে ঢাকা ডিজি মহোদয়ের সাথে কথা হয়েছে বিশ দিনের ভিতরেই তোমাদের রেজাল্ট আসবে। তোমরা নিশ্চিন্তে বাড়ীতে ফিরে যাও তার কথায় আশস্হ হয়ে ছাত্র, ছাত্রীরা বাড়ীতে ফিরে যায়। মানুষিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছে উক্ত প্রতিষ্ঠানের সকল পরীক্ষার্থী। এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতিষ্ঠানের শিক্ষাব্যাবস্থায় সংশ্লিষ্ট শিক্ষক ও শিক্ষিকা- কর্মচারীদের গাফিলতির কারনে এরকম হয়েছে। শিক্ষার্থীরা সহ অভিভাবকরা এ ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এ ঘটনায় কোমলমতি শিক্ষার্থীরা মানুষিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছে। তারা পরবর্তী শিক্ষা কার্যক্রম কিভাবে চালিয়ে যাবে সেটা নিয়ে অভিভাবকরা অনিশ্চয়াতার মধ্য দিয়ে সময় পার করতেছেন। এব্যাপারে অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলামের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তার ফোনটি বন্ধ দেখায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। উক্ত প্রতিষ্ঠানের জনৈন শিক্ষক এর সাথে যোগা যোগ করে জানা যায় ওই প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম ঢাকা কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে গেছেন শতভাগ ফেল আসার কারন খতিয়ে দেখার জন্য। এখন শিক্ষার্থীদের একটাই দাবি, যাচাই বাছই পূর্বক পরীক্ষার ফলাফল সংশোধন করে পুনঃফলাফল প্রকাশের পদক্ষেপ গ্রহন করা। যাতে করে তারা পরবর্তী শিক্ষাকার্যক্রম যথাযথ ভাবে চালিয়ে যেতে পারে

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536