করোনা আতংঙ্কে বাড়ির ভেতরে ফেরি করতে মানা করায় আগৈলঝাড়ায় সংখ্যালঘু পরিবারের উপর হামলা আহত-৪

করোনা আতংঙ্কে বাড়ির ভেতরে ফেরি করতে মানা করায় আগৈলঝাড়ায় সংখ্যালঘু পরিবারের উপর হামলা আহত-৪


মোল্লা আজিজুল বরিশালঃ- করোনা আতংঙ্কে বাড়ির ভেতরে ফেরি করে দুধ বিক্রয় করতে মানা করায় বরিশালের আগৈলঝাড়ায় এক সংখ্যালঘু পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে ৪জনকে আহত করেছে ওই ফেরিওয়ালার দুই পুত্র ও তার লোকজন। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যেতে চাইলে পথ অবরোধ করে পূর্ণরায় মারধর ও প্রাননাশের হুমকী। আগৈলঝাড়া থানা পুলিশ উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।
আহত ও এলাকাসূত্রে জানাগেছে, উপজেলার পশ্চিম সুজনকাঠি (মল্লিক বাড়ী) গ্রামের দুধ বিক্রেতা হারুন মল্লিককে গত বৃহস্পতিবার বাড়ির ভেতরে ঢুকে ফেরী করে দুধ বিক্রয় করতে গেলে তাকে নিষেধ করে ওই এলাকার রমেশ চন্দ্র করের স্ত্রী অঞ্জলী কর। এতে প্তি হয়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে গতকাল শুক্রবার সকালে দুধ কিক্রেতা হারুন মল্লিককের দুই পুত্র হাচান মল্লিক (৩২) ও তার ছোট ভাই হাবিব মল্লিক (৩০) লোকজন নিয়ে সংখ্যালঘু অঞ্জলী করের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তাদের ঘরে ঢুকে মাধর করে ওই সংখ্যালঘু পরিবারের অঞ্জলী কর (৫০), ও তার পুত্রবধূ ঝর্নাকর (৩০), পুত্র প্রভাত কর (২৭)কে আহত করে। এছাড়াও তার বড় পুত্র দৈনিক সাহসী বার্তা পত্রিকার আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি অমিয় কর’কে মারধর করে আহত করে। এসময় ঝর্নাকর’কে জোর করে তুলে নিতে চাইলে সংখ্যালঘু পরিবারে ডাক-চিৎকারে এলাকার লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে। ওই সময় হামলাকারীরা পালিয়ে গেলেও আহতরা চিকিৎসার জন্য গৈলা হাসপাতালে রওনা দিলে পথে মধ্যে তাদের আটক করে পূর্নরায় মারধর করতে থাকে। পথে হামলাকারীদের দেখেই সাংবাদিক অমিয় কর আগৈলঝাড়া থানায় ফোন করে জানালে এস.আই মোক্তার ঘটনাস্থালে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। হামলাকারীরা পুলিশের সামনে প্রাননাশের হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়। আহতদের আগৈলঝাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় সাংবাদিক অমিয় কর বাদী হয়ে আগৈলঝাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন।
সংখ্যালঘু পরিবারের লোকজন সাংবাদিকদের জানান, পূর্নরায় তাদের উপর হামলা হতে পারে একারনে তারা আতংঙ্কে রয়েছে। সংশ্লিষ্ট উধ্বর্তন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেভ কামনা করেছেন তারা।
এঘটনায় আগৈলঝাড়া থানার ওসি আফজাল হোসেন জানান, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536