নোয়াখালীতে বাবা ব্রিকস ফিল্ড মালিক জাফর পাটোয়ারী সংবাদকর্মীকে গায়েব করে ফেলার হুমকি দিলেন

নোয়াখালীতে বাবা ব্রিকস ফিল্ড মালিক জাফর পাটোয়ারী সংবাদকর্মীকে গায়েব করে ফেলার হুমকি দিলেন

নোয়াখালী থেকে :

নোয়াখালী জেলা প্রশাসক তনময় দাস বর্তমান পরিস্থিতিতে নোয়াখালীকে লকডাউন করার নির্দেশনা প্রদান করেন। আর তারই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম থেকে আসা দুইটি কয়লার ট্রাক কে, কোথায় থেকে এসেছেন এবং কোথায় যাবেন এই মর্মে জিজ্ঞাসাবাদ করলে,

ড্রাইভার জানান কয়লার ট্রাক গুলো এসেছে চট্টগ্রাম থেকে এবং যাবে এক নং ছাতারপাইয়া ইউনিয়নে। আর তারেই জের ধরে বর্তমান করানো ভাইরাস প্রতিরোধে নোয়াখালী জেলা প্রশাসক তনময় দাসের লকডাউন প্রধানের বিষয়টি অবগত করি এবং ড্রাইভার এর কাছ থেকে মোবাইল নাম্বার নিয়ে ছাতারপাইয়া ইউনিয়ন ব্রিকস ফ্রেন্ড মালিকের সাথে কথা বলে লকডাউন বিষয়টি সম্পর্কে তাকে বুঝিয়ে বলি,

প্রতিউত্তরে তিনি লজ্জিত হয়ে সংবাদকর্মীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন এবং পরবর্তীতে টাকার চেয়ে জীবন মূল্যবান এই বিষয়টি মাথায় রেখে কাজ করবো বলে জানান। এই মর্মে তাকে সাবধান সর্তকতা করে গাড়ি দুইটির ড্রাইভারকে চলে যেতে নির্দেশ প্রদান করি। এই ঘটনার প্রায় আধ ঘন্টা পরে বাচ্চু পাটোয়ারী এবং সহদর জাফর পাটোয়ারী সন্ত্রাসী কার্যকলাপের ৮ থেকে ১০ জন ছেলেপুলে নিয়ে অতর্কিত ভাষায় গালমন্দ সহ মেরে ফেলার, এমনকি গায়েব করে ফেলার হুমকি ধমকি দিতে থাকেন সংবাদকর্মীকে।

পরবর্তীতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসলে মোবাইল কলে যোগাযোগের মাধ্যমে বাচ্চু পাটোয়ারী কে বোঝানোর চেষ্টা করি কিন্তু তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে বলতে থাকেন, আমি ঘরে বসেই ইউএনও এবং থানার ওসিকে ম্যানেজ করি আর তোমরা কোথাকার কোন বালের সাংবাদিক। তার কথোপকথনের কল রেকর্ডিংটি সাংবাদিকের সংগ্রহে রয়েছে।

নোয়াখালী সেনবাগ উপজেলার কেশারপাড় ইউনিয়ন বীরকোট গ্রামের জাফর পাটোয়ারী এবং বাচ্চু পাটোয়ারী সরকারি কর্মরত সম্মানিত লোকদের বিষয়ে আপত্তিকর কথার প্রতিবাদ জানালে, খুব উত্তেজিত হয়ে সংবাদকর্মীর উপরে হামলা চালানোর চেষ্টা করেন এই সময়ে আশেপাশে থাকা লোকজন এসে সংবাদকর্মীদের ইজ্জত হেফাজত করেন।

প্রশ্ন হচ্ছে কয়লার ট্রাকগুলো যাচ্ছিল ছাতারপাইয়া ইউনিয়ন ব্রিকস ফিল্ডে আর বাচ্চু এবং সহদর জাপর পাটোয়ারীর বাবা ব্রিকস ফিল্ড হচ্ছে ৩নং ডুমুরুয়া ইউনিয়নে যেখানে ড্রাইভার এবং মালিক দুজনেই তাদের ভুল স্বীকার করলেন সেখানে বাচ্ছু এবং জাফর পাটোয়ারী লোকজন নিয়ে এসে সাংবাদিকের উপর অতর্কিত ও উশৃংখল এবং গায়েব করে ফেলার হুমকি দেওয়ার অর্থ কি ?

বিষয়টি নোয়াখালী জেলা প্রশাসক তনময় দাস মহোদয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ সহ সত্যতা যাচাইয়ের মধ্য দিয়ে উপযুক্ত শাস্তির আওতায় অপরাধীদেরকে আনার জোর দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি দেশযোগ টেলিভিশন, চ্যানেল টি ওয়ান এবং দৈনিক জাতীয় পত্রিকা ডোনেট বাংলাদেশ নোয়াখালী প্রতিনিধি হিসেবে নিষ্ঠার সাথে সংবাদ উপস্থাপন কারী সংবাদীক এবং সেনবাগ উপজেলা প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী সদস্য মাহমুদুর রশিদ রাজু এবং

জাতীয় সাংবাদিক ক্লাব কেন্দ্রীয় কমিটি গবেষণা ও সাহিত্য সম্পাদক, দর্পণ টিভি, ভোরের আলো, সি এন বাংলা টেলিভিশন, আইন বিষয়ক নিউজ পোর্টাল অপরাধ ডটকম সেনবাগ উপজেলা প্রেসক্লাব কার্যনির্বাহী সদস্য আপোশহীন সত্য প্রচারক সাংবাদিক শাহাদাত হোসাইন স্বপনকে গায়েব করে ফেলার হুমকি সহ সরকারি কর্মরত সম্মানিত ব্যক্তিদের বিষয়ে আপত্তিকর অশ্লীল ভাষায় কথাবার্তার রেকর্ডিংটি সত্য যাচাইয়ের অন্যতম দাবিদার।

নোয়াখালীতে কর্তব্যরত সরকারি কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি সাংবাদিক হুমকির বিষয়টি নিরসনে আপনারা মুখ্য ভূমিকা পালন করবেন বলে আমরা আশা করছি।

সংবাদ শেয়ার করুন

রমজান আলী, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি। সাতকানিয়া থানায় ঢেমশা ইউনিয়নে শারমিন সুলতানা রিনি (২৮) নামে এক গৃহবধূ কে কুপিয়ে হত্যা করেন তার স্বামী ঘাতক আবদুর রহিম(৩৮) বৃহস্পতিবার (১৭) সন্ধ্যা ৬ টার দিকে এই ঘটনা গঠেন। ঐ ঘাতক তার স্ত্রী কে দারারু দা দিয়ে মাথা পিঁছনে আঘাত করেন, আঘাত করা পরে ঘাতক স্বামী নিজেই ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দিয়ে পুলিশ কে খবর দেন, সাতকানিয়া থানার পুলিশ এসেছে আহত শারমিন সুলতানা রিনি কে উদ্ধার করে কেরানিহাট একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়,পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয় । ঐ ঘাতক স্বামী আবদুর রহিমের বাড়ি ঢেমশা ইউনিয়ন ৬নং ওয়ার্ডে নরুল আমিন ডাং এর বাড়ির, রঞ্জু মিয়ার ৪র্থ ছেলে বলে জানা যায়,শারমিন সুলতানা বাপের বাড়ি সাতকানিয়া উপজেলার গোয়াজার পাড়া তাদের বিয়ে হয়, প্রায় ৯ বছর আগে বর্তমান তাদের তিন টা সন্তান আছে শেষ সন্তান টা জম্ম হয় মাত্র তিন মাস হচ্ছে বলে জানা যায়। এক সূত্র জানা যায় কিছু দিন যাবতৎ সেই বাসা ভাড়া নেন। কিন্তু প্রায় সময় তাদের পারিবারিক বিবাদ হত স্বামী নিজের স্ত্রী কে চরিত্রহীন ও ইয়াবা খায় বলে উক্তি করত, এই ঘটনা কে কেন্দ্র করে ঘাতক স্বামী আবদুর রহিম নিজেই স্ত্রী কে কুপিয়ে হত্যা করেন। এ বিষয়ে সাতকানিয়া থানার ওসি আনোয়ার হোসেন কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্বামীর উপর্যুপরি কোপে গুরুতর ভাবে জখম হয় স্ত্রী, চট্টগ্রাম হাসপাতালে নেওয়া পথে শারমিনের মৃত্যু হয়। এবং তিনি আরো বলেন স্বামী আবদুর রহিম সেই নিজেই ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করেছেন ঘটনা স্থলে গিয়ে তাকে আটক করি বর্তমানে সেই থানা হেফাজতে আছে নিহতের পরিবারে কেউ এসে মামলা দায়ের করলে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরন করা হবে।

নিজের স্ত্রী কে কুপিয়ে হত্যা করে ঘাতক স্বামী নিজেই ৯৯৯ ফোন

themesbazartvsite-01713478536