নাটোরের সিংড়ায় নিখোঁজ ছাএীকে ২৪ দিন পর উদ্ধার করলো,পিবিআই-রাজশাহী

নাটোরের সিংড়ায় নিখোঁজ ছাএীকে ২৪ দিন পর উদ্ধার করলো,পিবিআই-রাজশাহী

রাজিবুল ইসলাম বাবু ,স্টাফ রিপোর্টারঃ নাটোরের সিংড়া উপজেলার চক সিংড়া গ্রামের শ্যামলী আক্তার (ছদ্ম নাম) নামের চতুর্থ শ্রেনীর এক শিশুকে দীর্ঘ ২৪ দিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিকেশন ( পিবিআই) রাজশাহী। গত ৭ই মার্চ স্কুল ছুটি হলেও বাড়ি ফিরি আসেনি শ্যামলী । দূঃচিন্তায় পড়ে তার পরিবার। পরে বিষয়টি নিয়ে সিংড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করে শিশুটির মা। পরবর্তিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়, যাহার মামলা নং- ৩৫, তাং-২৬/০৩/২০২০। পিবিআই এর তথ্য সূত্রে জানা যায়, গত ৭ মার্চ স্কুল ছুটির পরে এই শ্যামলী একাই রাস্তা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলো হঠাৎ একই গ্রামের মুক্তা (৪২) ও শাহিনা (৪০) নামের দুইটি মহিলা মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে যায় তদেরে বাসায়। এরপর ঐ বাচ্চাটি আর কিছুই বলতে পারেনি। তবে বিষয়টি নিয়ে শিশুটির পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায়, দরীদ্র ভ্যান চালকের মেয়ে শ্যামলীকে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের মিঠুন (৩০) নামের এক যুবক বিরক্ত করতেন। মিঠুন তার বোন ও দুলাভাইদের সহযোগিতায় শ্যামলীকে জোড় পূর্বক অপহরন করে। অপহরনের পরে মিঠুন তাকে তথাকথিত আত্নীয় গুরুদাসপুরে নিয়ে যায়। এরপর ভুয়া কাজী দিয়ে শ্যামলীর সাথে মিঠুনের বিয়ে দেয়। এবিষযে পিবিআই এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ৩০শে মার্চ আমাদের কাছে একটি অভিযোগ আসে এই অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা একটি স্পেশাল টিম তৈরি করি। ঐদিন সন্ধ্যা রাত থেকে অভিযান পরিচালনা করি।১লা এপ্রিল বুধবার ভোরে আমরা শিশুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হই। তবে শিশুটিকে উদ্ধারের পাশাপাশি ২ জন আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। উদ্ধারকৃত স্পেশাল টিমের তদন্ত কর্মকর্তা সাব-ইন্সপেক্টর সাইদুর রহমান জানান, এই অভিযোগের তদন্ত ভার আমার উপর দিলে, আমি ইন্সপেক্টর শামিম হোসেন স্যার, এস আই মহিদুল স্যার, এএসআই মতিন, এএসআই আসাদুজ্জামান ও এএসআই হান্নানসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উদ্ধার কাজ পরিচালনা করি। রাজশাহী পিবিআই এর একাধিক কর্মকর্তা জানান,উদ্ধার কাজ পরিচালনা করে আমরা জানতে পেরেছি যে, উক্ত এলাকায় একটি সিন্ডিকেট এই অপরাধমূলক কার্যক্রমের সাথে জড়িত রয়েছে উদ্ধারকৃত আশামীগন।মামলার অধিকতর অগ্রগতির জন্য এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলতে চাইনি পিবিআইএ কর্মকর্তাগন। আমরা খুব শিগ্রয় তাদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে আসবো এবং গনমাধ্যমকে বিস্তারিত জানাবো

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536