শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন:

শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন:

১৯০৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন। গুরুত্ব বিবেচনায় রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের অন্যতম এই স্টেশনটি জংশন হিসেবে স্বীকৃত।

বর্তমানে ঢাকা-সিলেট এবং সিলেট- চট্টগ্রাম পথে প্রতিদিন চলাচলকারী ১২টি আন্তঃনগর ট্রেনের প্রতিটিই যাত্রাবিরতি নেয় শায়েস্তাগঞ্জে। ঢাকা-সিলেট কিংবা সিলেট- চট্টগ্রাম পথে সরাসরি বাস যোগাযোগ চালুর আগে এই দুই পথে যাতায়াতের ক্ষেত্রে হবিগঞ্জ জেলাবাসীর একমাত্র ভরসাস্থল ছিল শায়েস্তাগঞ্জ জংশন। এখনও রেল যোগাযোগের ক্ষেত্রে জেলার ৮টি উপজেলার একমাত্র মাধ্যম শায়েস্তাগঞ্জ স্টেশন। অথচ শত বছরের পুরনো স্টেশনটিতে নেই কোন ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার। ফলে যাত্রাপথে দুগ্ধপোষ্য শিশুদের নিয়ে মায়েদের নানা বিড়ম্বনা ও বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়।

অবশেষে এমন বিড়ম্বনা থেকে মুক্তি পেতে যাচ্ছেন এ পথে চলা দুগ্ধপোষ্য শিশুর মায়েরা। আজ বিকেলে উপজেলা প্রশাসন শায়েস্তাগঞ্জ কর্তৃক শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে স্থাপিত ব্রেস্ট ফিডিং কর্নারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মিনহাজুল ইসলাম। এ সময় উপজেলা মেডিকেল অফিসার ডাঃ সাদ্দাম হোসেন, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মুর্শেদা আক্তার মণি, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আলী, শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার আবুল খায়ের প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
“জনসেবায় জনপ্রশাসন” এই ব্রত নিয়ে মানুষ ও মানবতার কল্যাণে আমরা আছি জনগণের পাশে।
[ দরিদ্র চ্যরিটি ফাউন্ডেশনের সদস্যবৃন্দসহ যারা এই মহতি উদ্যোগে সহায়ক ভূমিকা পালন করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।]।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536