পর্যটন উদ্যোক্তা হাজী দেলোয়ারসহ পরিবারের সদস্যদের হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ

পর্যটন উদ্যোক্তা হাজী দেলোয়ারসহ পরিবারের সদস্যদের হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কক্সবাজারে পর্যটন শিল্পের অন্যতম উদ্যোক্তা হোটেল ব্যবসায়ী হাজী দেলোয়ার হোসেনসহ তাঁর পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে সাজানো বানোয়াট মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন এবং সমাবেশ করেছে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, মানবাধিকার ও পেশাজীবি সংগঠন। রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন হিউম্যান রাইটস মুভমেন্টের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি ড. মুজাহিদুল ইসলাম।

পশ্চিম নতুন বাহারছড়া সমাজ কল্যাণ সংঘের উপদেষ্টা জানে আলম পুতুর সভাপতিত্বে ও হিউম্যান রাইটস মুভমেন্টের জয়েন্ট সেক্রেটারি সালেহ আহমেদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন হোটেল-মোটেল কর্মচারী ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কমরেড কলিম উল্লাহ, সার্চ মানবাধিকার সোসাইটির কক্সবাজারের সভাপতি মোহাম্মদ আলী মুন্না, পশ্চিম নতুন বাহারছড়া সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি ফরিদুল আলম, আবদুল হালিম ও ছালেহ আহমদ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, কক্সবাজারের ওয়ার্ল্ডবীচ রিসোর্টের মালিক শিল্পপতি দেলোয়ার হোসেন ও তার দুই ছেলে ওমর ফারুক, ইমরান ফারুক ফয়সাল এবং পশ্চিম নতুন বাহারছড়ার কৃতি সন্তান শেখ আবদুল্লাহকে ওয়ার্ল্ড বীচ রিসোর্টের একাংশের ল্যান্ড ওনার নুরুল আলমের যোগসাজশে মিথ্যা বানোয়াট চাঁদাবাজি মামলা দেওয়া হয়। এই মিথ্যা মামলায় গত ৮ নভেম্বর রাতে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা দেলোয়ার হোসেনকে ২০ লাখ টাকার চাঁদাবাজি মামলা দিয়ে পুরো পুলিশ প্রশাসনকেই কলুষিত করলেন ওসি।

অবিলম্বে জননেত্রী ও মানবতার মা শেখ হাসিনার ঘোষিত আধুনিক পর্যটন শিল্প বাস্তবায়নে কক্সবাজার সদর থেকে ওসি গিয়াসকে অপসারণপূর্বক তদন্ত করে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা হোক। পাশাপাশি জনৈক নুরুল আলমের বিরুদ্ধে আধুনিক পর্যটন নগর গড়ে তোলার বিরোধী অপচেষ্টা রুখে দেওয়া হোক।

সংবাদ শেয়ার করুন

সাইফুল ইসলাম,কক্সবাজার প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের মহেশখালীর কালামারছড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ দুজন সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব -১৫।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ২ টার দিকে র‍্যাব -১৫ একটি টিম মহেশখালীর কালামারছড়ায় এঅভিযান পরিচালনা করে।

র‍্যাব -১৫ এর অতিঃ পুলিশ সুপার সিনিঃ সহকারী পরিচালক ( ল ‘ এন্ড মিডিয়া ) অধিনায়ক মোঃ আবু সালাম চৌধুরী জানান, মহেশখালীর কালামারছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের রাস্তার উপর কয়েকজন সন্ত্রাসী অপরাধমূলক কর্মকান্ড করার জন্য অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানিক দল অভিযানে গেলে র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে খায়রুল আলম ( ২৫ )ও ছৈয়দুল করিম ( ৩৩ )কে আটক করে।এসময় এই সিন্ডিকেটের ২/৩ জন সদস্য কৌশলে পালিয়ে যায়।

পরে আটককৃতদের কাছ থেকে ৪ রাউন্ড তাজা কার্তুজ,২ টি একনলা বন্দুক ও ২ টি ওয়ানশুটারগান উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান:আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে সমাজে অস্হিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে সন্ত্রাস ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল।

গ্রেপ্তারকৃত ও পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে মহেশখালী থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

মহেশখালীতে অস্ত্রসহ দুই সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার।

লামা,বান্দরবান : বান্দরবানের লামা উপজেলায় ১৬ বছরের এক কিশোরীর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। ১৭ জানুয়ারী(সোমবার) দুপুরে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাঁশখাইল্যা ঝিরি মুসলিম পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত কিশোরী নুরুন্নাহার (১৬) বাঁশখাইল্যা ঝিরি মুসলিম পাড়া এলাকার মৃত আবুল হোসেন ও আনোয়ারা বেগমের মেয়ে।

লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, খবর পাওয়ামাত্র ঘটনাস্থলে পৌঁছায় লামা থানা পুলিশ। নিহতের লাশ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে লামা থানা আনা হচ্ছে। মঙ্গলবার ভোরে লাশটি বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হবে।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার আপ্রুসিং মার্মা বলেন, ঘটনাটি মর্মান্তিক। রাত ৯টায় লাশ নেয়ার জন্য একটি জীপ গাড়ি আনা হয়। গাড়িটি নষ্ট হয়ে যাওয়ায় আরো একটি গাড়ি আনা হচ্ছে।

নিহতের মা আনোয়ারা বেগম বলেন, আমার মেয়ে দর্জি কাজ শিখতে চেয়েছিল। রোববার আমাকে দর্জি কাজ শেখার বিষয়ে বলে। আমি রাজি হইনি। সোমবার সকালে আমি অন্যের বাড়িতে কাজ করতে যাই। দুপুরে বাড়িতে এসে দেখি ঘরে ভিতরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে আছে।

দর্জি কাজ শিখতে বাধা দেওয়ায় অভিমানে গলায় ফাঁসে আত্নহত্যা।

সাইফুল ইসলাম,কক্সবাজার প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের মহেশখালীর কালামারছড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ দুজন সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব -১৫।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ২ টার দিকে র‍্যাব -১৫ একটি টিম মহেশখালীর কালামারছড়ায় এঅভিযান পরিচালনা করে।

র‍্যাব -১৫ এর অতিঃ পুলিশ সুপার সিনিঃ সহকারী পরিচালক ( ল ‘ এন্ড মিডিয়া ) অধিনায়ক মোঃ আবু সালাম চৌধুরী জানান, মহেশখালীর কালামারছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের রাস্তার উপর কয়েকজন সন্ত্রাসী অপরাধমূলক কর্মকান্ড করার জন্য অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানিক দল অভিযানে গেলে র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে খায়রুল আলম ( ২৫ )ও ছৈয়দুল করিম ( ৩৩ )কে আটক করে।এসময় এই সিন্ডিকেটের ২/৩ জন সদস্য কৌশলে পালিয়ে যায়।

পরে আটককৃতদের কাছ থেকে ৪ রাউন্ড তাজা কার্তুজ,২ টি একনলা বন্দুক ও ২ টি ওয়ানশুটারগান উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান:আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে সমাজে অস্হিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে সন্ত্রাস ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল।

গ্রেপ্তারকৃত ও পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে মহেশখালী থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

মহেশখালীতে অস্ত্রসহ দুই সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার।

themesbazartvsite-01713478536