সিলেট তামাবিল সড়কে পর্যটক হয়রানি বন্ধ করুন

সিলেট তামাবিল সড়কে পর্যটক হয়রানি বন্ধ করুন

স্টাফ রিপোর্টার সিলেট থেকেঃ
পর্যটক বিমুখ করে এভাবে সিলেট তামাবিল মহা সড়কের বাদরুকা নামক স্থানে (নতুন হাইওয়ে পুলিশের অফিস) ট্রাফিক পুলিশের মানি অপারেশন কার্যক্রম পরিচালনা করছে ৷ একজন বাস সহকারী পেছনে হাত রেখে অপারগতা প্রকাশ করলেও ছাড় দেওয়া হচ্ছে না ৷ এভাবে কাগজপত্র চেকিংয়ের নামে দৈনিক শতশত পর্যটকবাহী বাস থামিয়ে চলে মানি অপারেশন ৷ কবে থামবে এসব খেলা ৷ জাতীর কাছে প্রশ্ন কেন পর্যটকবাহী গাড়ীই তাদের টার্গেট ৷
যেখানে উল্লেখ রয়েছে পর্যটকবাহী কোন গাড়ীর বিনা কারনে হয়রানি না করা হয় ৷ সিলেট বিভাগ জুড়ে রয়েছে দর্শনীয় স্থান ৷ এ স্থান গুলো দেখতে প্রতিনিয়ত দেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে হাজার হাজার পর্যটক সিলেটের জৈন্তাপুর গোয়াইনঘাট জাফলং ঘুরতে আসেন ৷ এক সমীক্ষায় দেখা গেছে সিলেট বিভাগে বর্তমানে দৈনিক ১লক্ষ পর্যটক বিভিন্ন স্থানে ভিজিট করেন ৷ ফলে সিলেটের অর্থনীতি ব্যপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে ৷ যার বড় অংশ পর্যটন খাত হতে আসছে ৷
এদিকে নিষেদাজ্ঞা থাকার পরও জৈন্তাপুর ট্রাফিক পুলিশ প্রতিদিন এসব পর্যটকবাহী বাস থামিয়ে কোন কোন ক্ষেত্রে ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড় করিয়ে রাখেন ৷ ফলে আগত পর্যটকরা দূভোগে পড়তে হয় ৷ অপরদিকে বাস চালকরা কোন কিছু করতে না পেরে অসহায়ের মত টাকা দিয়ে ভোগান্তি হতে ছাড় পান ৷ এসব ভোগান্তি চলতে থাকলে অচিরেই পর্যটন খাত ধ্বংস করা হবে ৷ পর্যটক বিমুখ হতে বৃহত্তর সিলেট বিভাগ ৷ পর্যটন ও অধ্যাত্মিক নগরী সিলেটের সকল রোড হতে ট্রাফিক পুলিশের হয়রানী বন্ধের দাবী সচেতন মহলের ৷ বিষয়টি সিলেট বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, ডিআইজি, পুলিশ সুপার, সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ সুদৃষ্টি কামনা করেন ।

সংবাদ শেয়ার করুন

সামসুজ্জামান(সেন্টু)আত্রাই (ন‌ওগাঁ) বিশেষ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মোঃ সুমন খাঁ ওরফে রাকিব (১৯) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে আত্রাই থানা পুলিশ। গ্রেফতার মোঃ সুমন খাঁ ওরফে রাকিব উপজেলার একই গ্রামের মোঃ নজরুল ইসলামের ছেলে। উপজেলার ক্ষিদ্র কালিকাপুর নামক স্থানে ঘটনা ঘটেছে।

আত্রাই থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আবুল কালাম আজাদ জানান, উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের ক্ষিদ্র কালিকাপুর (ভাটোপাড়া) গ্রামে গত শনিবার গৃহবধূ মোছা পাখী বিবি প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য ঘর থেকে বাহির হওয়া মাত্রই বাড়ির পাশে উৎপেতে থাকা মোঃ সুমন খাঁ ওরফে রাকিব (১৯) ও তার সহযোগী মোঃ সিয়াম (২০) তাকে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

পরের দিন রবিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল বেলা ভিকটিম বাদী হয়ে দুই জনকে বিরুদ্ধে আত্রাই থানার এজাহার দায়ের করে।

পরে পুলিশ রাতে অভিযান চালিয়ে ওই গ্রামের অভিযুক্ত ১ নাম্বার আসামী মোঃ সুমন খাঁ ওরফে রাকিবকে আটক করে। সোমবার (২৯ নভেম্বর) তাকে কোর্টে সোপর্দ করে পুলিশ।

ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আত্রাইয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আটক-১

themesbazartvsite-01713478536