করোনায় বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় মাঠ ভাড়া দিয়েছে কর্তৃপক্ষ

করোনায় বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় মাঠ ভাড়া দিয়েছে কর্তৃপক্ষ

ইব্রাহিম সুজন, নীলফামারী প্রতিনিধি:

নীলফামারী সদর উপজেলা লক্ষীচাপ ইউনিয়নের ‘দুবাছুরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়’টি ভাড়া দিয়েছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিদ্যুৎ বিভাগের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিদ্যালয়ের মাঠ ও কক্ষ ভাড়া নিয়ে বিদ্যুতের সরঞ্জাম গুদামজাত করেছে।
এ নিয়ে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, করোনার কারণে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্রী সুব্রত রায় বলেন আমরা কোন ভাড়া দেইনি। এলাকার উন্নয়নের জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহের কারনে জায়গা দিয়েছি।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, করোনা সংক্রমণের কারণে দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে। ৮/৯মাস থেকে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম রেখেছেন ও বিদ্যালয়টি ব্যবহার করে আসছেন টিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের দুটি কক্ষসহ প্রাচীর বেষ্টিত মাঠে বিদ্যুতের তারের কয়েল, লম্বা বাঁশসহ বিভিন্ন বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম রাখা আছে। কথা হয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের স্থানীয় প্রতিনিধি সঙ্গে।
নীলফামারীর আওতায় রামগন্জ এলাকায় বিদ্যুৎ বিভাগের লাইনের কাজ চলছে। প্রকল্পের কাজের যাবতীয় বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম রাখার জন্য তারা এই বিদ্যালয় ভবন ভাড়া নিয়েছেন।

বিদ্যালয়ের সভাপতি শ্রী ভবানী কুমার রায় বলেন, স্কুলের মাঠ ভাড়ার বিষয়ে আমি কিছু জানি না । স্কুলের মাঠে বিদ্যুৎে লোক কাছ করছে এটা জানি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা সরকারে নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ১২আগষ্টের মধ্যে বিদ্যালয় চালু করতে প্রধান শিক্ষকদের জানিয়েছি। সরকারের অনুমতি ছাড়া বিদ্যালয়ের মাঠ অন্য কোনো কাজে ব্যবহার করা যাবে না। বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক যদি সরকারী শর্ত ভঙ্গ করে থাকে তবে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536