ফরিদপুরের সিনিয়র সাংবাদিক মুশফিকুর রহমান ঝান্ডার ইন্তেকাল

ফরিদপুরের সিনিয়র সাংবাদিক মুশফিকুর রহমান ঝান্ডার ইন্তেকাল

ফরিদপুর প্রতিনিধি :

সাপ্তাহিক ফরিদপুর বাণী পত্রিকার সম্পাদক, দৈনিক অর্থনীতি পত্রিকার সাবেক জেলা প্রতিনিধি, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সদস্য,সিনিয়র সাংবাদিক মুশফিকুর রহমান ঝান্ডা (৬৭) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল ৬টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন তিনি।
মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
শুক্রবার রাতে বাদ এশা ফরিদপুর চকবাজার জামে মসজিদে জানাজা শেষে স্থানীয় আলীপুর পৌর কবরাস্থনে তাকে দাফন করার কথা। এর আগে তাঁর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য মরদেহ ফরিদপুর প্রেসক্লাব চত্ত্বরে আনা হবে বলে জানা গেছে।

সাংবাদিক মুশফিকুর রহমান ঝান্ডার মৃত্যুতে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো.কবিরুল ইসলাম সিদ্দিকী,সাধারন সম্পাদক মশিউর রহমান খোকন, বাংলাদেশ অনলাইন এডিটরস্ কাউন্সিলের নিবার্হী সভাপতি ওয়াহিদ মিল্টন, দৈনিক ফতেহাবাদ সম্পাদক প্রফেসর এবিএম সাত্তার,ফরিদপুর মুসলিম মিশনের সম্পাদক অধ্যাপক এমএ সামাদ,ফরিদপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু,বাংলাদেশ ফটো জানার্লিষ্ট এ্যসোসিয়েশন ফরিদপুর জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক মাহবুব হোসেন পিয়াল গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

আশির দশকের সূচনা লগ্নে মুসফিকুর রহমান সাংবাদিকতা শুরু করেন।ফরিদপুর থেকে প্রকাশিত অধূনা লুপ্ত সাপ্তাহিক জাগরণ পত্রিকার মাধ্যমে তাঁর সাংবাদিকতার হাতে খড়ি। তিনি ওই পত্রিকার শহর প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতেন। তিনি ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক শক্তি পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি হিসেবেও কাজ করেন। জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা,ফরিদপুর জেলা শাখার সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন তিনি। এছাড়া ফরিদপুর সাংবাদিক পরিষদ নামে অধূনালুপ্ত সাংবাদিকদের একটি ফোরামের সহসভাপতি ছিলেন মুশফিকুর রহমান ঝান্ডা।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536