চেক জালিয়াতি ও প্রতারনার দায়ে সংবাদ সম্মেলন

চেক জালিয়াতি ও প্রতারনার দায়ে সংবাদ সম্মেলন

সামছুদ্দিন, বিশেষ প্রতিনিধি

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী ইসমাইল চৌধুরী, পিতা-হারুন চৌধুরী, গ্রাম-রসুল পুর, বেগমগঞ্জ, নোয়াখালী জানান তিনি ঢাকার বংশালে পার্সের ব্যবসা করতেন। ব্যবসায়ীক সূত্র ধরে আরেক ব্যবসায়ী সাহাদাত হোসেন, পিতা-নজির আহমেদ, ৬০/৩৯ ধলপুর, কাজির পাড়া রোড, যাত্রাবাড়ি, ঢাকা-১২০৪ এর সাথে সম্পর্কের সৃষ্টি হয়।সাহাদাত এই সম্পর্ক কে পুঁজি করে নন জুডিশিয়াল স্টাম্পের মাধ্যমে গত ১০/১০/২০১৭ ইং তারিখে ৫০০০০০(পাঁচ লক্ষ)টাকা ধার নেন।পরবর্তী তে ইসমাইল চৌধুরীর টাকার প্রয়োজন হলে সাহাদাতের নিকট টাকা চাইলে তিনি তাল-বাহানা শুরু করেন। পরবর্তীতে ব্যবসায়ীদের চাপে পড়ে ১০/৩/২০১৯ তারিখে ন্যাশনাল ব্যাংক, হিসাব নাম্বার-৮২৮৮৩৪০ এর ৫০০০০০( পাঁচ লক্ষ) টাকার একটি চেক দেন।চেকটি ব্যাংকে জমা দিলে ডিজঅনার করা হয়। ইসমাইল চৌধুরী বাধ্য হয়ে ২০/৭/২০১৯ তারিখে যাত্রাবাড়ি থানায় জিডি করেন।যাহার নাম্বার-১৬৬৪। জিডির খবর পেয়ে আনুমানিক ২৫/৯/২০১৯ইং তারিখে সাহাদাত স্বপরিবারে গাঁ ডাকা দেন। ইসমাইল চৌধুরি বাধ্য হয়ে ১৬/১০/২০১৯ তারিখে সিআর কোটে মামলা করেন, যাহার নাম্বার ১৪৭৯/১৯। এখন ইসমাইল চৌধুরী সংবাদ সম্মেলন করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন তাহার কষ্টজিত টাকা ফেরত পেতে।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536