রামু রাজারকুলে সন্ত্রাসী ইলিয়াস বাহিনীর তান্ডবলীলা গতিরোধ করে স্বর্নালংকার ও নগদ টাকা লুট।

রামু রাজারকুলে সন্ত্রাসী ইলিয়াস বাহিনীর তান্ডবলীলা গতিরোধ করে স্বর্নালংকার ও নগদ টাকা লুট।

ক্রাইম রিপোর্ট:

কক্সবাজার শহরের রামু থানাধীন রাজারকুল হালদারকুলের চিহ্নিত সন্ত্রাসী বহু মামলার ওয়ারেন্ট আসামি মোঃ ইলিয়াস বাহিনীর সন্ত্রাসী তান্ডব নির্যাতনের স্বীকার আব্দুল মোনাফের পরিবার।

গত ১৯/০৪/২০২১ ইংরেজি রাত ০৯ঃ০০ঘটিকায় আব্দুল মুনাফের ছোট ভাই আব্দুর রহমান এর শ্বশুর বাড়ি হইতে দাওয়াত খাওয়া শেষে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ওতপেতে থাকা মোঃ ইলিয়াসের লালিত সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র, লাঠিসোটা নিয়ে জানে মেরে ফেলা ও হত্যা করার উদ্দেশ্যে আব্দুল মুনাফের পরিবার পরিজনের সকল সদস্যদের উপরে এলোপাতাড়ি অতর্কিত হামলা করে এতে গুরুতর রক্তাক্ত ও মারাত্মকভাবে যখম হয় আব্দুর রহমান, আছমা আক্তার, রেহেনা আক্তার, সন্ত্রাসী মহিলাদের পরনের কাপড় চোপড়া টেনেহিঁচড়ে শ্লীলতাহানি করেছে বলে ও অভিযোগ উঠেছে। এ সময়ে রেহেনা আক্তারের গলায় থাকা ২ ভরি ওজনের স্বর্নের চেইন যার আনুমানিক মুল্য এক লক্ষ চল্লিশ হাজার টাকা,এবং আব্দুর রহমান এর পকেটে থাকা নগদ পনেরো হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।পরবর্তীতে তাদের শোর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা মেরে লাশ ঘুম করা ও মিথ্যা মামলার হুমকি ধমকি দিয়ে চলে যায়।

স্থানীয় লোকজন এসে আহত রক্তাক্ত অবচেতন অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে প্রথমে রামু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে পরবর্তীতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে উন্নত চিকিৎসা দেওয়া হয়।এই ঘটনায় আবদুল মুনাফ বাদী হয়ে মোঃ ইলিয়াস গংয়ের বিরুদ্ধে রামু থানায় এক খানা মামলা দায়ের করেন,, মামলা নং ৩২, ধারা ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৭৯/৩৫৪/৫০৬
বাদীপক্ষের বরাত দিয়ে বলেন
মামলা হওয়ার এতদিনে ও আসামিদের বিরুদ্ধে থানার ভুমিকা দেখতে পাচ্ছি না অথচ ওদিকে সন্ত্রাসী বাহিনীর বীরদর্পে চলাফেরা ঘুরাফেরা করতেছে,খোলামেলা দোকানদারি করতেছে যা এলাকার সবার সামনে।


এ ব্যাপারে মামলার দায়িত্ব প্রাপ্ত আই এ রামু সাব-সেক্টর মোঃমঞ্জুর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন এটা যেহেতু মারামারির মামলা মেডিকেল সার্টিফিকেট তদন্তের বিষয় আছে এটা আমাদের তদন্তনাধীন রয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536