সিলেটের গোয়াইনঘাটে ডাক্তার নামধারী হাতুরে চিকিৎসকের খপ্পরে সাধারণ মানুষ প্রকৃত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত

সিলেটের গোয়াইনঘাটে ডাক্তার নামধারী হাতুরে চিকিৎসকের খপ্পরে সাধারণ মানুষ প্রকৃত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত


স্টাফ রিপোর্টার সিলেট থেকে:
চিকিৎসার নামে ডাক্তার পরিচয়ে গোয়াইনঘাটে ব্যবসা পেতে বসেছেন হাতুরী চিকিৎসকরা।এতে প্রকৃত চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত সাধারণ মানুষ।পর্যটন নগরী জাফলংয়ে পর্যাপ্রাপ্ত এমবিবিএস ডাক্তার না থাকার সুযোগ নিচ্ছে এইসব প্রতারকরা।স্বাস্থ্যসেবার নামে দীর্ঘদিন এই অনিয়ম চললেও তা বন্ধে উদাসীন প্রশাসন।এসব ফার্মেসীতে নেই কোন দক্ষ ফার্মাসিষ্ট।সর্বরোগের ডিগ্রিদারী এসব হাতুরে চিকিৎসকদের ভুল চিকিৎসার কারণে মারাতœক ক্ষতির সনমূখীন হচ্ছে অনেকেই।তবে লাইসেন্স ছাড়া যত্র-তত্র ফার্মেসী স্থাপন করা হলে ব্যাবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন,্ঔষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর।গত ১২মার্চ শুক্রবার সকালে সিলেটের বাংলাবাজার,রাধানগর ও জাফলং বাজারের কয়েকটি ফার্মেসীতে অভিযান চালায় ঔষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর সিলেটের সহকারী পরিচালক সিকদার মো.কামরুল ইসলাম।অভিযানে বাংলাবাজার জুলিয়া ফার্মেসীতে পাওয়া যায়,যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট,জিনসিন সিরাপ,অনুমোদনহীন ও মেয়াদ উত্তীর্ন ঔষধসহ নানা অনিয়ম।এছাড়াও ফার্মেসীর মালিক হাতুরে চিকিৎসক আবুল কালাম বৈধ কোন কাগজ পত্র দেখাতে পারেনি। প্রতারনা করে দীর্ঘদিন থেকে মডেল ফার্মেসীর সাইনবোড ব্যাবহার করে আসছিল।এসময় ভুয়া ডাক্তার’র সাইনবোড অপসারণ করে ঔষধ প্রশাসন। বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রচার না করার অনুরোধ করে ব্যার্থ হয়ে,প্রচারিত গণমাধ্যম ও সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে কুরুচি মন্তব্য করে প্রতারক আবুল কালাম।চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসায় জড়িত সকল প্রতারকদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যাবস্তা নিবেন সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ এমন প্রত্যাশা সচেতন মহলের।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536