বৃহত্তর কুমিল্লা জেলায় যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যদের নিয়ে যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটির আয়োজনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহত্তর কুমিল্লা জেলায় যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যদের নিয়ে যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটির আয়োজনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শফিকুর রহমান, নিজস্ব সংবাদদাতা:-
যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যদের নিয়ে গঠিত প্রাণ প্রিয় সংগঠন যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটির উদ্যোগে আয়োজিত ১৬-০১-২০২১ শনিবার সকাল ১১ ঘটিকায় কান্দির পাড় কুমিল্লা জিলা
স্কুল প্রাঙ্গনে মাওলানা রায়হানের কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে মিসেস রওশন আরার সভাপতিত্বে ডাঃ আবুল খায়ের এর সঞ্চালনায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হোসেন মুকুল, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ রুহুল আমিন, সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল বারেক, এম এ তাহের তারেক, মোঃ আইয়ুব আলী, ডাঃ আবুল খায়ের কেন্দ্রীয় কমিটি। যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যদের
হয়ে জাহানা হক তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন
যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যদের মানবেতর জীবনযাপন ও মামলা-হামলা সহ বিভিন্ন ভাবে নির্যাতনের কথা উল্লেখ করে বলেন এই পরিস্থিতি থেকে আমরা মুক্তি পেতে সরকারের সহযোগিতা
কামনা করছি। তিনি উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে উদ্দেশ্য করে বলেন আপনারা যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটি সমগ্র বাংলাদেশের ক্ষতিগ্রস্তদের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবের জন্য দায়িত্ব নিয়ে কাজ করছেন তাই আপনাদের ধন্যবাদ জানাই। এবং আজ থেকে আপনাদের সাথে আমরাও সম্পৃক্ত হলাম। আরো বক্তব্য রাখেন মোঃ হেলাল উদ্দিন, মোঃ আবুল কালাম আজাদ। বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে আগত নেতৃবৃন্দরা হলেন মোরশেদা বেগম, হেলেনা বেগম, ফজিলাতুন্নিছা রোজি, নার্গিস আক্তার, আবিদা সুলতানা, সেমিম রুবিনা, নাজমুন নাহার চৌধুরী সহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপস্থিত সকলকে উদ্দেশ্য করে বলেন আমিও আপনাদের মত একজন যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত সদস্য। আমি যুবকের মাধ্যমে হারানো টাকা ফিরে পেতে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে যোগাযোগ করে ব্যর্থ হয়ে উপলব্ধি করতে পারি যে, আমার একার দ্বারা হারানো টাকা উদ্ধারে কিছু করা সম্ভব নয়। তাই যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত কিছু সংখ্যক সসদস্যদের নিয়ে ২০১৩ সালে যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটি নামের সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করি। উক্ত সংগঠনের রেজিস্ট্রেশন নেওয়ার পর থেকে প্রায় ৭-৮ বছর যাবৎ যুবক সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে চেষ্টা-তদবিরের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিকতা-সহযোগিতায় ৯৯% শতাংশ কাজ সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছি ইনশাল্লাহ। এখন দেশের জেলা-উপজেলা গুলোর ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যদের সংগঠিত করে কমিটি করার
মাধ্যমে পাওনা টাকার পরিমাণ নির্ধারণ করে
সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে হিসাব জমা দেওয়া। তাই আপনারা যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটির ব্যানারে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রধান অতিথি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে আলোচনা সভা শেষে রওশন আরাকে সভানেত্রী ও জাহানা হককে সদস্য সচিব করে ২৩ সদস্য বিশিষ্ট কুমিল্লা জেলা আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536