অসহায় বিধবা নারীর বসতঘর ও দোকান নির্মাণে বাধা,প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা

অসহায় বিধবা নারীর বসতঘর ও দোকান নির্মাণে বাধা,প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা

বিপ্লব দাশ,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ-
চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী থানার অর্ন্তগত সতীশ বাবুর লেইন সংলগ্ন এলাকায় বিধবা নারীর রত্না চক্রবর্ত্তী , স্মামী – মৃত অমল চক্রবর্ত্তীর পুরাতন বসতঘর ও নির্মানধীন দোকান চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক ঝুকিঁপূর্ণ ভবন চিহিৃত হয়। চিহিৃতস্থানে নিরাপত্তার জন্য জায়গার মালিক নতুন ভবন ও দোকান নির্মাণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করলে মৃত অমল চক্রবর্ত্তীর জায়গার ওয়ারিশ সূত্রে জায়গার মালিক স্ত্রী রত্না চক্রবর্ত্তীকে নারী হিসেবে বাধাঁ প্রদান করতে থাকে কিছু অসাধু চক্র। অসহায় নারীর সম্বল বসতঘর এবং ভাড়া দেওয়া দোকানগুলো ও ধর্মীয় উপাসনালয় নির্মাণ করতে গেলে জায়গার মূল্য বৃদ্ধি থাকায় অসাধু চক্র জাল দলিল তৈরি করে তা দখলের পায়তারা করে বিভিন্ন ভয় ভীতি প্রদর্শন করিলে রত্না চক্রবর্ত্তী বাদি হয়ে স্মারক নং ২৩৩১ (২) তারিখ : ৩০.১১.২০২০ তারিখে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে চট্টগ্রাম মহানগরে ৫ জন নামীয় ও আজ্ঞাত ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে ফৌজদারী কার্য্যবিধি ১৪৫ ধারা মতে মামলা করা হয়।
পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া মৃত অমল চক্রবর্ত্তী বসতভিটা ও উপাসনালয় এবং দোকানঘরে ওয়ারিশসূত্রে বাদী রত্না চক্রবর্ত্তী দীর্ঘকাল যাবৎ অবস্থান করছেন। জমি লোভে কিছু অসাধু চক্র দলবদ্ধ হয়ে ১০৮ ও ১৯৬ এর জাল দলিল তৈরি করার জন্য মহামান্য আদালতে একটি মামলা এখনো চলমান রয়েছে। এব্যাপারে ২০১৩ সালের ১৬ জুলাই চট্টগ্রামের বহুল প্রচারিত দৈনিক পত্রিকার ১১ পৃষ্টায় চলমান মামলার বিষয়ে সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।
এব্যাপারে অসহায় বিধবা নারীর রত্না চক্রবর্ত্তী প্রশাসনের কাছে আকুল আবেদন করে বলেন, শান্তিতে আশ্রয়ে থাকার জন্য বসতভিটা নির্মাণ করছি। তার পাশাপাশি ধর্মীয় উপাসনালয় নির্মাণ এবং আয় রোজাগারের জন্য ভাড়া দেওয়া দোকানের মাধ্যমে আমি দুমোটো ভাত খেতে পারি। তাই বসতভিটা নির্মাণ ও উপাসনালয়, দোকানঘর নির্মাণে আমি প্রশাসনের কাছে সুদৃষ্টি কামনা করি।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536