নাগর্নো-কারাবাখে যুদ্ধের ভয়াবহতা বেড়েই চলেছে।

নাগর্নো-কারাবাখে যুদ্ধের ভয়াবহতা বেড়েই চলেছে।

মহসিন মুন্সী, বিশেষ প্রতিনিধি:

আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান একে অন‍্যকে বেসামরিক লোকজনের উপর আক্রমণের জন‍্য দায়ী করেছে।

আর্মেনিয়া বলেছে তাদের বাহিনী গানজায় সামরিক ঘাটিতে আক্রমন শুরু করলেও বেসামরিক ক্ষয়ক্ষতি র আশংকায় আক্রমন বন্ধ করে দেয়। আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল আল-জাজিরা কে বলেছেন ‘ আর্মেনিয়া কারাবাখের নিরাপত্তা দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ ‘।


অপরদিকে আজারবাইজান এর পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় বলেছে রবিবার আজারবাইজান এর আরো একটি শহর গানজা য় আর্মেনিয়ার রকেট হামলায় এক বেসামরিক ব‍্যক্তি নিহত ও আরো চারজন আহত হয়। আর বাকু এর পরিবর্তে আর্মেনিয়ার যে সকল স্থান থেকে হামলা করা হয়েছে সেইসব সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার হুমকি দিয়েছে।

আর্মেনিয়ার মুখপাত্র বলেছেন নাগর্নো-কারাবাখ এর প্রধান শহর স্টেপানাকার্ট এ আজ সকালে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে আজেরী বাহিনী গোলাবর্ষন করে যাতে পর পর বেশ কিছু বিষ্ফোরণ এর শব্দ পাওয়া যায়। আর্মেনিয়া মুখপাত্র এএফপি কে বলেছেন যে আজেরী বাহিনী স্টেপানাকার্ট এ বেসামরিক লক্ষ‍্যবস্তুতে বোমাবর্ষন করেছে।

আল-জাজিরা প্রতিবেদক বলেছেন যে গানজা র লোকেরা বলেছেন যে প্রায় এক ঘন্টার ব‍্যবধানে এখানে দুইবার রকেট আক্রমন হয় যাতে বেশ কয়েকজন আহত হয়। আজারবাইজান কর্তৃপক্ষ বলেছে তারা আক্রমনের জবাব দিয়েছেন।
গত শতকের নব্বই দশকের পর থেকে সবচেয়ে ভয়ানক যুদ্ধ এখন চলছে। একদিকে আজারবাইজানের এলাকা দখল করে নিতে সংকল্পবদ্ধ আর্মেনিয়া যেখানে আজারবাইজানের সঙ্গে রয়েছে তুরস্ক। অপরদিকে আর্মেনিয়ার সঙ্গে রয়েছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা সমঝোতা। রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ফ্রান্স, ইরান আহ্বান জানিয়েছে এবং আশা করছে যথাশীঘ্র সম্ভব যুদ্ধ বিরতির, অপরদিকে তুরস্ক দাবি করেছে আর্মেনিয়াকে অনতিবিলম্বে দখলিকৃত এলাকা ছেড়ে দিয়ে আলোচনায় বসতে।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536