আশুগঞ্জে অসহায় দুই পরিবারের পৈতৃক সম্পত্তি দখলের চেষ্টা বাধা দিলে প্রাণনাশের হুমকি!

আশুগঞ্জে অসহায় দুই পরিবারের পৈতৃক সম্পত্তি দখলের চেষ্টা বাধা দিলে প্রাণনাশের হুমকি!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া খেকে হাসান জাবেদ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার শরিফপুর গ্রামে আদালতের নিষেধ অমান্য করে। অসহায় দুই পরিবারের পৈতৃক সম্পত্তি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা চালাচ্ছে একই বাড়ির প্রতিপক্ষ মকবুল হোসেনের লাঠিয়াল বাহিনীরা। পৈতৃক সম্পত্তি না ছাড়লে প্রাণ নাশের হুমকিও দিচ্ছেন। অথচ এই পৈতৃক সম্পত্তি নিয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।

সরেজমিনে অনুসুন্ধান করতে গিয়ে মামলার এযাহার ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়।

ইব্রাহীম মিয়ার, পিতা মৃত্যু আব্দুল মালেক মিয়া, বিগত ৭৫ বছর পূর্বে জীবিত থাকা অবস্থায় তার সন্তানদের জন্য প্রায় ৩.৬০ শতাংশে জায়গা জমি দিয়ে যান। পরে আব্দুল মালেক মিয়ার, সন্তানরা মালিক হয়ে দীর্ঘদিন ধরে খাস জায়গাতে বসবাস করে আসছে কখনো কোনো অসুবিধা হয়নি। কিন্তু, গত সাত-আট বছর ধরে। আমাদের পৈতৃক সম্পত্তি জোরপূর্বক দখল করা চেষ্টা করে আসছে আমরা দখলে বাধা দিলে প্রতিপক্ষ মকবুল হোসেন,নান্নু, করিম, আলকাস, জারু, নাছিরসহ তাদের লাঠিয়াল বাহিনিরা আমাদের হত্যা করবে বলে হুমকি ধমকি প্রদান করেন। এখন আমাদের পরিবার নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

ভুক্তভোগী ইব্রাহীম মিয়া আরো বলেন।
আমাদের সাবেক জায়গার দাগে মৌজার সিএস ১৯৬০, আরুয়ারে ১৯৬০, ১৯৬১, ১৯৬২, ১৯৬৩, ১৯৫৭, ১৯৫৮, ১৯৫৯, ১৯৫৪, ১৯৪৫, দাগের শতাংশ সম্পত্তি মোট ৩.৬০ শতাংশে জায়গা জমি দিয়ে প্রায় একশ বছর পূর্ব থেকে জায়গাতে বসবাস করে আসছি।

আরেক ভুক্তভোগী ইব্রাহীম মিয়ার, ছেলে জামাল মিয়া, বলেন। আমি বার বার তাঁকে আমাদের জায়গা ছাড়ার অনুরোধ করি। আমার চাচা সহ পরিবারের সদস্যগণ অনুরোধ করে। কে শুনে কার কথা। মকবুল হোসেনের লাঠিয়াল বাহিনীরা আমাদের অনুরোধের প্রতি কোন রকমের কর্নপাত না করে আমাদের জমিতে ভোগ দখল অব্যাহত রাখবেন বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। বিভিন্ন অজুহাতে আমাদের পৈতৃক সম্পত্তি দখলের অপচেষ্টা ও হুমকি-ধামকির মাধ্যমে আমার বৃদ্ধ পিতাকে হয়রানি করে আসছেন।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536