নোয়াখালী জেলার অবহেলিত একটি দ্বীপ হাতিয়া

নোয়াখালী জেলার অবহেলিত একটি দ্বীপ হাতিয়া


মোঃসামছু উদ্দিন লিটন, বিশেষ প্রতিনিধি নোয়াখালী
বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণে নোয়াখালী জেলা থেকে বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপ হাতিয়া। হাতিয়া দ্বীপে প্রায় ৭ লক্ষ লোকের বসবাস। ভাঙ্গা গড়া এই দ্বীপ উপজেলার বিভিন্ন ধরনের সমস্যায় জর্জরিত। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে নদী ভাঙ্গন, বিদ্যুৎ সমস্যা, যাতায়েতের সমস্যা। এই সমস্যা গুলো বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার জন্য কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়ে কত মানুষ তার ভিটে মাটি হারিয়েছে তার কোন শেষ নেই। মাইলের পর মাইল এলাকা নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়ে বিলিন হয়ে গিয়েছে। ধীরে ধীরে বাংলাদেশের মানচিত্র থেকে হাতিয়া দ্বীপ নামের উপজেলা টি হারিয়ে যাচ্ছে। হাতিয়া দ্বীপের মানুষ গুলোর পাশে কেউ নেই, আজকে তারা নিরুপায়।

এইতো গেল নদী ভাঙ্গনের কথা এবার আরো একটি সমস্যা হচ্ছে বিদ্যুৎ সমস্যা। অন্ধকারের হাতছানির মতো পড়ে আছে হাতিয়া দ্বীপ। যেখানে সমগ্র বাংলাদেশের উন্নয়ন হচ্ছে সেখানে হাতিয়া দ্বীপ দিনের পর দিন অনুন্নত হচ্ছে। বাংলাদেশের ৯৬% মানুষ বিদ্যুৎত সুবিধা ভোগ করিতেছে আর হাতিয়া দ্বীপ অন্ধকারে পড়ে আছে। বিদ্যুৎত না থাকার কারণে হাতিয়াতে তেমন কোন শিল্প কারখানা গড়ে উঠতে পারে নাই। এই বিদ্যুৎ না থাকার কারণে হাতিয়া দ্বীপের শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নত হতে পারে নাই। যেখানে ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সারা বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে সেখানে হাতিয়া এখনো এগোতে পারে নাই।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জননেত্রী শেখ হাসিনার একটি লক্ষ্য ছিল ২০২১ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়া কিন্তু হাতিয়াতে এখনো বিদ্যুৎ পৌঁছাতে পারেনি। বিদ্যুৎতের পারে আসা যাক যাতায়াত সমস্যার কথা, মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে হাতিয়া দ্বীপের যাতায়েতের প্রধান হাতিয়ার হচ্ছে নৌ-পথ। কিন্তু নৌ- পথ কতটুকু নিরাপদ? মাছ ধরার ট্রলারে করে মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিয়মিত নৌ- পথ পাড়ি দিচ্ছে। এখানে নিরাপদে যাতায়াতের জন্য নেই কোনো সী-ট্রাক,বা নিরাপদ কোন নৌ জান। নিরাপদ নৌ-জান না থাকার কারণে প্রায় কোন না কোন দূর্ঘটনা ঘটে থাকে। নৌ- জানের পরের ধাপ হচ্ছে হাতিয়ার অভ্যন্তরীন যাতায়াত এখানে নিরাপদে যাতায়েতের কোন সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। কারণ হাতিয়ার রাস্তা গুলো একেবারে নিম্ন মানের এবং বঙ্গুর, ধীরে ধীরে হাতিয়া দ্বীপ উপজেলা আরো অবহেলিত হয়ে পড়ছে।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536