মৃত্যুর ২২ বছর পরও কবরে ‘অক্ষত লাশ

মৃত্যুর ২২ বছর পরও কবরে ‘অক্ষত লাশ

নিউজ ডেস্ক:
প্রায় ২২ বছর আগে দাফন করা এক ব্যক্তির মরদেহ অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে ঝালকাঠি সদর উপজেলায়। এসময় মরদেহ এবং কাফনের কাপড়ও অক্ষত ছিল।

মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে পুনরায় ওই মরদেহ দাফন করা হয়েছে। ঘটনাটি ঝালকাঠি সদর উপজেলার ভাটারাকান্দা গ্রামের।
১৯৯৮ সালের দিকে একই গ্রামের বাসিন্দা মো. মোজাফফর আলী হাওলাদার ৬৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর পর তাকে ভাটারাকান্দা গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছিল।

স্থানীয় ও স্বজনরা জানান, ২২ বছর আগে মারা যাওয়া ঝালকাঠি সদর উপজেলার চরকাঠি গ্রামে মো. মুজাফফর আলী হাওলাদার মারা যান। তাকে ওই গ্রামেই দাফন দেয়া হয়। অনেক দিন ধরে গ্রামটি নদীগর্ভে বিলিন হওয়ার উপক্রম হলে মৃত মুজাফফর আলী হাওলাদারের স্বজনরা তার কবর স্থানান্তরের উদ্যোগ নেয়।

এ সময় মুজাফফর আলী হাওলাদারের কবর স্থানান্তরের জন্য কবর খুঁড়লে তাতে দেখা যায় মৃত ব্যক্তির কাপড় অক্ষত রয়েছে। এছাড়া মৃতদেহও অক্ষত।

পরে স্বজনরা উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে এলে মরদেহের শুধু চামড়াগুলো হাড়ের সাথে মিশে গেছে দেখতে পায়। এ খবর মুহূর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ওই বাড়িতে লোকজন ভিড় জমায়।

পরে মঙ্গলবার আসর বাদ নামাজে জানাজা শেষে পুনরায় পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয় বলে জানান ধানসিঁড়ি ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন।

সংবাদ শেয়ার করুন

হযরত আলহাজ্ব শাহ মৌলানা হাফেজ আহমদ (রহঃ) শাহ্ সাহেব কেবলা চুনতী কর্তৃক প্রবর্তিত ঐতিহাসিক ১৯ দিন ব্যাপী সীরতুন্নবী (সঃ) মাহফিল এর ৫১তম মাহফিল উপলক্ষে চট্টগ্রাম শহরের প্রস্তুতি সভা ১২ অক্টোবর ২০২১ নগরীর রীমা কনভেনশন হলে আলহাজ্ব মাওলানা হাফিজুল ইসলাম আবুল কালাম আজাদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন দারুন উলুম আলীয়া মাদ্রাসা ছাত্র সংসদ জিএস শেখ সুলতান রাফি। নাতে রাসুল সঃ পাঠ করেন তামজিদুর রহমান, আবদুল হাদি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমাজ সেবক ও চুনতী হাকিমিয়া কামিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মাওলানা হাফিজুল হক নিজামী। হাজার হাজার আশেকানে ভক্তের উপস্থিতিতে যাহেদুর রহমান ও কশশাফুল হক শেহজাদ এর সঞ্চালনায় মাহফিল এর সফলতা ও সার্বিক সহযোগিতার প্রত্যাশা নিয়ে বক্তব্য রাখেন অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত সচিব এডিএম আবদুল বাসেত দুলাল, নির্বাহী কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইসমাঈল মানিক, সিটি কর্পোরেশন প্যানেল মেয়র ও দেওয়ান বাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড, আবুল আলা মোহাম্মদ হোসামুদ্দীন, লোহাগাড়া সমিতি চট্টগ্রাম সভাপতি শফিক উদ্দিন, অলিউদ্দিন মোহাম্মদ, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের প্রধান অধ্যাপক সাদাত জামান খান মারুফ, চুনতি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জয়নুল আবেদীন জনু, তৈয়বুল হক বেদার, কাজি আরিফুল ইসলাম, আসমা উল্লাহ ইমরাত। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন মোতোয়াল্লী কমিটির সদস্য আবু তাহের, মাহবুবুল হক, ইদ্রিস মিনহাজ, নির্বাহী কমিটির সদস্য ওবাইদুল মান্নান রোকন, প্রফেসর হামিদুল হোসেন ছিদ্দিকী, ওয়াহিদুল হক, মাওলানা জাফর সাদেক মিয়াজী, আবু হেনা টুটুল, চুনতি সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এডভোকেট মিনহাজুল আবরার, মাওলানা কফিল উদ্দিন, মাওলানা এবাদুর রহমান, কামরুল হুদা, জয়নাল আবেদীন শবাব, মোহাম্মদ নাঈম নিমু, সাদুর রহমান, মাহমুদ জামান খান, আবদুল ওয়াহেদ সোহেল, শাহাদাত খান ছিদ্দিকী, ইব্রাহীম মোহাম্মদ, আরিফ ইয়াসির, আবরারুল হক মুকুট প্রমুখ। মীলাদ পরিচালনা করেন মাওলানা আবু দাউদ মোহাম্মদ শাহ শরীফ এবং মুনাজাত পরিচালনা করেন মোতোয়াল্লী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মাওলানা কাজী নাছির উদ্দিন। চুনতি ক্লাব সমূহ আনজুমান ই নওজোয়ান, শিকড়, দীপিত, নুরানী, চিরহরিৎ, নিরেট, প্রয়াস, অর্ণব, অগ্রাহী, সংস্মৃতি, সন্দীপন, অনির্বাণ, এলায়েন্স ও ক্লাব-৭১ এর সার্বিক সহযোগিতা ও স্বেচ্ছাসেবক বৃন্দ প্রস্তুতি সভা সফল আয়োজনে অনবদ্য ভূমিকা পালন করেন। উল্লেখ্য, আগামী ১৮ অক্টোবর ২০২১ হতে ৫১তম মাহফিল এ সীরতুন্নবী (সঃ) আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন এবং ৫ নভেম্বর দিবাগত রাত আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে ইনশাআল্লাহ।
স-িতাজ২৪.কম/এস.টি

১৯ দিনব্যাপী সীরতুন্নবী (সঃ) মাহফিল এর চট্টগ্রাম শহর কেন্দ্রিক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত

ইব্রাহিম সুজন, নীলফামারী প্রতিনিধ

নীলফামারীর সৈয়দপুরে জমিজমা সংক্রন্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের সাজানো মিথ্যা মামলায় ফেলে এক নিরীহ পরিবারকে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে-নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলা কয়াগোলাহাট ঘোনপাড়া এলাকায়৷ অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিগত ৭৯ বছর পূর্বে বসতি স্থাপন করে স্থানীয়রা রাস্তার উপর দিয়ে চলাচল করে আসছি৷ সম্প্রতি পারিবারিক কলহের জেরে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে প্রতিপক্ষ৷ পরবর্তীতে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে পুলিশ এসে রাস্তা খুলে দিলেও পুলিশ চলে যাবার পরে রাস্তাটি পুনরায় বন্ধ করে দেয় প্রতিপক্ষ৷ পরবর্তী স্থানীয়দের সহোযোগিতায় বাড়ির বিকল্প রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করলেও গত ২৬র্মাচ এ বিকল্প চলাচলের রাস্তাটিও বন্ধ করে দেয়া হয় । এতে বাধা দিলে সিরাজুল ইসলাম ও তার ভাই আজিজুল হক ও শফিকুল ইসলামের পরিবার এ-র উপর আতর্কিত হামলা করে বাড়ী ঘরের বেড়া, চেয়ার, টেবিল ভাংচুর করে ধারালো অস্ত্রসহ(হাচুয়া,বটি,দা) লোহার মোটা পাইপ দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করে প্রতিপক্ষ সিরাজুলরা। আহতদের অবস্থা গুরুতর হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুরে নেয়া হয় (ওসিসি বিভাগের রিপোর্টের ভিত্তিতে সিরাজুল ও শফিকুলদের আসামী করে সৈয়দপুর থানায় মামলা করে ভুক্তভোগী পরিবারটি৷ এদিকে, মামলাটি থানায় দেয়ার পর থেকেই ভুক্তভোগী পরিবারটির উপর বিভিন্ন ধরনের হুমকী ধামকি বিদ্যমান রেখেছে প্রতিপক্ষ৷ ভুক্তভোগী পরিবারের আতিয়ার রহমান খোশো বলেন, আমি রংপুর বিভাগের রংপুর বীর উত্তম শহীদ সামাদ স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান বিষয়ক সহকারী শিক্ষক । ঘটনার দিন আমি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত ছিলাম, এই মর্মে প্রতিষ্ঠান প্রিন্সিপাল মহোদয় প্রত্যায়ন পত্র প্রদান করেন। শফিকুলেরা অপরাধ সংঘটিত করে আগেই মামলা দায়ের করেন৷ আমি উপস্থিতি না থাকলেও আমাকে আসামির শ্রেনীভুক্ত করা হয়েছে৷ এমনকি, সৈয়দপুর পুলিশ ফাঁড়িতে আমার কল রেকর্ড আছে এবং ঐ কল রেকর্ড ট্রাকিং করে দেখা গেছে আমি ঐদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ২৬ শেষ মার্চের জাতীয় অনুষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালনে যুক্ত ছিলাম, শুধু মাত্র আমাকে হয়রানি করার জন্য এবং আমার সন্মান হানি করার জন্য হয়রানি মূলক মিথ্যা সাজানো মামলা করা হয়েছে৷ এ অভিযোগ প্রসঙ্গে শিক্ষকের বিরুদ্ধে করা মামলার বাদী শফিকুল ইসলাম মুঠোফোনে বলেন, আতিয়ার রহমান খোশো তাদের সম্পর্কে আত্মীয় আমাদের সাথে জগড়া লাগলে তিনি তাদের পরামর্শ ও শেল্টার দেন। তাই ওনাকে আসামি করা হয়েছে। আমাদের জমিজমা নিয়ে বিরোধ আছে। তারাও আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে তাই আমরাও তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি৷ তবে, মামলার সূষ্ঠ তদন্ত দাবি করেন সহকারী শিক্ষক আতিয়ার রহমানসহ অন্যান্য ভুক্তভোগীর।

নীলফামারীতে মিথ্যা মামলায় ফেলে নিরীহ পরিবারকে হয়রানির অভিযোগ

themesbazartvsite-01713478536