পাবনা পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম’র মাধ্যমে ফেরৎ পেলেন চাকুরীবাবদ দেয়াকৃত টাকা

পাবনা পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম’র মাধ্যমে ফেরৎ পেলেন চাকুরীবাবদ দেয়াকৃত টাকা

তুহিন হোসেন,নিজস্ব প্রতিনিধি : পাবনা জেলা  পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম কে  ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন উজ্জল শেখ, পিতা: আব্দুল মতিন শেখ, গ্রাম- হাজারীপাড়া,মুলাডুলি, ঈশ্বরদী, পাবনা। তিনি বলেন পাবনা জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব শেখ রফিকুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম মহোদয় জেলা পুলিশ  সহ – তার চাকরী বাবদ দেয়াকৃত টাকা ফেরৎ নিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছেন । উজ্জল শেখ বলেন  চার বছর পূর্বে বেকারত্বের গ্লানি নিয়ে যখন একটি চাকরির জন্য হন্য হয়ে ঘুরছি তখন এক প্রতারক চক্রের খপ্পরে পরে তিন লক্ষ টাকা প্রদান করি একটি চাকরির জন্য পরবর্তীতে সে বুঝতে প্রতারিত হয়েছে। চাকুরী দেয়ার কথা বলে যে ব্যক্তি টাকা নেন।তিনি ঈশ্বরদীর স্থানীয় ব্যক্তি, প্রতারককারীর  নাম প্রকাশ করেন না উজ্জল ও তার পরিবার তাদের টাকা ফেরৎ পাওয়ার জন্য।এদিকে টাকার শোকে আমার অসহায় বাবা মা মানসিক ভাবে ভেঙে পরেছিল। স্থানীয় নেতা কর্মীর মাধ্যমে অনেক চেষ্টা করেও টাকা ফেরৎ পেতে ব্যর্থ হই। উপরন্তু তারা আমাকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখায়। তাদের হুমকি ধমকিতে আমি ও আমার পরিবার ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে পরি। কোন উপান্তর না পেয়ে যখন হতাশ হয়ে পরি  তখন সে উক্ত ঘটনাটি আমি পাবনা জেলার পুলিশ সুপার জনাব শেখ রফিকুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম মহোদয় কে জানায় এবং আমি পুলিশ সুপার বরাবর একটি দরখাস্ত প্রদান করি। পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম পরদিনই উজ্জল কে  ডেকে  বিস্তারিত জেনে প্রতারক চক্রের হাত থেকে টাকা উদ্ধারের আশ্বাস দেন। তাঁর আশ্বাস পেয়ে আমার হতাশ হৃদয় আবার আশায় বুক বাধে। কারন এই তিন লক্ষ টাকা আমার পরিবারের নিকট কত মূল্যবান তা ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব না। পুলিশ সুপার মহোদয় উক্ত টাকা উদ্ধারের দায়িত্ব দেন পাবনা ডিবি পুলিশের ওসি জনাব মোহাম্মদ ফরিদ হোসেন স্যারকে। মাত্র এক মাসের মধ্যে সম্পুর্ন তিন লক্ষ টাকা এসপি স্যারের সরাসরি তত্বাবধানে জেলা পুলিশ উদ্ধার করে দেয়। এই টাকা পেয়ে আমার বাবা মা আবেগাপ্লুত হয়ে পরে। উজ্জল শেখ সহ তার পরিবার পাবনা জেলা পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম ও তার পরিবাবরের জন্য দোয়া করেন ।উজ্জল শেখের পরিবার বলেন  এমন মানবিক পুলিশ সুপার যদি দেশের সকল জেলায় থাকত তাহলে দেশটি সত্যিই পাল্টে যেত। তিনি সম্প্রতি ঈশ্বরদী থানার অন্তর্গত হাজারীপাড়া গ্রামের বেহাল দশা কাঁচা রাস্তাটি এলজিইডির মাধ্যমে পাকা করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেন । এজন্য  এলাকাবাসী কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন  । এছাড়াও তিনি পাবনার বিভিন্ন জায়গার অসহায় ও বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাড়ান সবসময়। যে কোন বিপদ আপদে তাঁর কাছে গেলে সমস্যার যথাসম্ভব সমাধানের চেষ্টা করেন। তাই গ্রামের বাসিন্দারা দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা  এবং দোয়া করেন তিনি পুলিশ বিভাগের সর্বোচ্চ পর্যায়ে গিয়ে এভাবে সমগ্র দেশের অসহায় মানুষের পাশে দাড়াবেন।

সংবাদ শেয়ার করুন

সাইফুল ইসলাম,কক্সবাজার প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের মহেশখালীর কালামারছড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ দুজন সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব -১৫।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ২ টার দিকে র‍্যাব -১৫ একটি টিম মহেশখালীর কালামারছড়ায় এঅভিযান পরিচালনা করে।

র‍্যাব -১৫ এর অতিঃ পুলিশ সুপার সিনিঃ সহকারী পরিচালক ( ল ‘ এন্ড মিডিয়া ) অধিনায়ক মোঃ আবু সালাম চৌধুরী জানান, মহেশখালীর কালামারছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের রাস্তার উপর কয়েকজন সন্ত্রাসী অপরাধমূলক কর্মকান্ড করার জন্য অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানিক দল অভিযানে গেলে র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে খায়রুল আলম ( ২৫ )ও ছৈয়দুল করিম ( ৩৩ )কে আটক করে।এসময় এই সিন্ডিকেটের ২/৩ জন সদস্য কৌশলে পালিয়ে যায়।

পরে আটককৃতদের কাছ থেকে ৪ রাউন্ড তাজা কার্তুজ,২ টি একনলা বন্দুক ও ২ টি ওয়ানশুটারগান উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান:আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে সমাজে অস্হিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে সন্ত্রাস ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল।

গ্রেপ্তারকৃত ও পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে মহেশখালী থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

মহেশখালীতে অস্ত্রসহ দুই সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার।

themesbazartvsite-01713478536