জীবননগরে নাতির চিকিৎসা করাতে এসে লাশ হয়ে বাড়ী ফিরলেন নানী শিশুসহ আহত-৭

জীবননগরে নাতির চিকিৎসা করাতে এসে লাশ হয়ে বাড়ী ফিরলেন নানী শিশুসহ আহত-৭


মো: রাশেদুল ইসলাম (রাশেদ)
বিশেষ প্রতিনিধি,

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নাতিকে চিকিৎসা শেষে বাড়ী ফেরার প্রথে জীবননগর- দত্তনগর মহাসড়কের বাড়ভাঙ্গা নারিকেল বাগান স্থানে ইজিবাইক- লাটাহাম্বা মুখোমুখি সংঘর্ষে লাশ হয়ে বাড়ী ফিরলেন নানী মনোয়ারা বেগম(৫৫)। ঘটনাটি বুধবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে সংঘটিত হয়েছে।
নিহত মনোয়ারা বেগম পার্শ্ববর্তী মহেশপুর উপজেলার হুসুরখালী গ্রামের গোলাম হোসেনের স্ত্রী। এ সময় আহতরা হচ্ছেন- ইভা(৪),ইলমা(৮),নিরব(১৮),বৃষ্টি(১৪),লামিয়া(৫),নাজমুল। হোসেন (২২) ও তালাশ (১৮) । আহতরা নিহতের আত্মীয়- স্বজন ও প্রতিবেশী। আহতরা জীবননগর হাসপাতাল চিকিৎসাধীন আছেন।
নিহতের নাতি নাজমুল হোসেন(২২) বলেন,আমি বুধবার সন্ধ্যার আগে স্থানীয় ফুটবল মাঠে খেলা করছিলাম। খেলার এক পর্যায়ে আঘাত পাই। পরে অন্যান্য খেলোয়াড়রা আমাকে উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।

এ খবর বাড়ির লোকজন পেয়ে আমার নানীসহ আমার আত্মীয়-স্বজন আমাকে দেখতে হাসপাতালে যান এবং রাত সাড়ে নয়টার দিকে আমরা সবাই একটি ইজিবাইক যোগে বাড়ী ফিরে যাচ্ছিলাম। আমাদের ইজিবাইকটি জীবননগর- দত্তনগর মহাসড়কের বাড়ভাঙ্গা নারিকেল বাগান সংলগ্ন স্থানে পৌছানো মাত্র বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুতগামী স্যলোইঞ্জিন চালিত একটি লাটাহাম্বা আমাদের গাড়িতে প্রচন্ড জোরে ধাক্কা দিলে আমাদের ইজিবাইকটি ছিঁটকে পড়ে আমরা সবাই আহত হই।
এসময় এলাকাবাসী আমাদেরকে উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে ডাক্তার আমার নানীকে কে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের আত্মীয়। আক্কাস আলী বলেন,কপালে যা ছিল,তা হয়েছে
এ ঘটনায় আর মামলা- মোকদ্দমা করতে চাই না।

জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ(তদন্ত) ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, সড়ক দূর্ঘটনার কথা শোনা মাত্র আমি নিজে ঘটনাস্থল ও জীবননগর হাসপাতালে গিয়ে নিহত,আহতদের ব্যাপারে খোঁজখবর নিয়ে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করি। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে ঘটনার ব্যাপারে কোন অভিযোগ/ আপত্তি না করায় নিয়মিত কোন মামলা হয়নি। নিহতের লাশ বিনা ময়না তদন্তে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে ঘটনার ব্যাপারে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।
জীবননগর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. হেলেনা আক্তার নিপা বলেন, আহতরা সবাই বর্তমানে আশঙ্কা মুক্ত।
দু” জন বাদে সবাই চিকিৎসা শেষে বাড়ী ফিরে গেছেন।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536