ঈশ্বরদী উপজেলা প্রেসক্লাবে মানহানি ও বানোয়াট মামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

ঈশ্বরদী উপজেলা প্রেসক্লাবে মানহানি ও বানোয়াট মামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

 বিশেষ প্রতিনিধি : দৈনিক জনকন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার, বাংলা টেলিভিশনের সাংবাদিক, ঈশ্বরদী উপজেলা প্রেসক্লাব ও জাতীয় সাংবাদিক সোসাইটির সভাপতি তৌহিদ আক্তার পান্না এবং দৈনিক সকালের সময় পত্রিকা ও চ্যানেল-এস এর ঈশ্বরদী প্রতিনিধি এবং উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বিরুদ্ধে কথিত এমএন ইসলাম কর্তৃক মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক মামলা করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঈশ্বরদী উপজেলা প্রেসক্লাবের পক্ষ এ সভার আয়োজন করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ সেলের চেয়ারম্যান,আইনজীবি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পিপি এ্যাড. আখতারুজ্জামান মুক্তা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ সেলের উপদেষ্টা এ্যাড.মনোয়ার হোসেন স্বপন ও সেলের সমন্বয়ক এ্যাড.হেদাযেত উল হক। ঈশ্বরদী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তৌহিদ আক্তার পান্নার সভাপতিত্বে জাতীয় সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ সেলের সমন্বয়ক ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সহসভাপতি এ্যাড. হেদাযেত উল হক, উপজেলা প্রেসক্লাবের সহসভাপতি এস এ এম সুমন, জাতীয় সাংবাদিক সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক বিপুল জোয়ারদার, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এএ আজাদ হান্নান,সদস্য হাফিজুর রহমান সহ অন্যরা বক্তব্য দেন।
বক্তারা বলেন,ভাই ভাবীদের সাথে বাড়ির জমি বিক্রির ঘোষনা দিয়ে বায়না বাবদ ২৫ লাখ টাকা নিয়ে জমি রেজিষ্ট্রি করে না দেওয়া ও পারিবারিক মামলা মোকদ্দমার দ্ব›দ্ব বাধে। যে বিষয়টি ঈশ্বরদী থানা পুলিশ ও পাবনার পুলিশ সুপারের জানা রয়েছে। এরই মধ্যে এমএন ইসলাম শাহিনা আক্তারকে মারপিট করলে শাহিনা আক্তার এমএন ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা করেন। যে মামলা চলমান রয়েছে। এরই মধ্যে এমএন ইসলাম শাহিনা আক্তার গংকে দমানোর জন্য একটি চক্রের সাথে আতাত করে গত ২৩/০৮/২০২০ ইং তারিখে পরিকল্পিতভাবে ঈশ্বরদী থানায় কাউন্টার মামলা হিসেবে একটি মামলা করা হয়। এই মামলাতে পরিকল্পিতভাবে ঈশ্বরদী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তৌহিদ আক্তার পান্নাসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। কিন্তু তৌহিদ আক্তার পান্না তাদের বংশের কেউ নয় কোন ভাগ ভাগি ও নয়। খ্যাতিমান সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করে সামাজিকভাবে হেয়ো প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা করে ৫০ কোটি টাকার মান ক্ষুন্ন করা হয়েছে। এতে বিভিন্ন মহলে নিন্দার ঝড় বয়ছে। কোন প্রকার তদন্ত না করে অশুভ শক্তির অবৈধ তদ্বিরে রেকর্ড করা মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক মামলা প্রত্যাহারসহ ষড়যন্ত্রকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করা হয়।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536