রাজশাহীর কোরবানির হাট কাঁপাবে পুঠিয়ার ‘শান্ত বাবু’

রাজশাহীর কোরবানির হাট কাঁপাবে পুঠিয়ার ‘শান্ত বাবু’

রাজিবুল ইসলাম বাবু, স্টাফ রিপোর্টারঃ আর কিছুদিন পরেই কোরবানির ঈদ। তাই এবার ঈদকে সামনে রেখে রাজশাহীতে কোরবানির পশুর হাট কাঁপাতে আসছে পুঠিয়া উপজেলার কান্দ্রা এলাকার ‘ শান্ত বাবু’। এর ওজন প্রায় ২৫ মণ। এই সুঠাম স্বাস্থ্যের অধিকারী আর শান্ত প্রকৃতির সাদা-কালো মিশ্রণের ষাঁড়টিকে তার মালিক ও পরিবারের সদস্যরা আদর করে নাম রেখেছে শান্ত বাবু। রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার কান্দ্রা এলাকার কৃষক আলিমুদ্দিনের বাড়ির খামারের আদরে-যত্নে পালিত ঘাঁড়টি। বয়স দুই বছর চার মাস। বাসার এক গাভীর দ্বারা সরকারি ভাবে বিজ প্রদান করা বাচ্চাটি এখন বিশাল আকৃতির ‘শান্ত বাবু’। তাকে দেখতে আলিমুদ্দিনের বাড়িতে প্রতিদিনই থাকে বিভিন্ন এলাকার দর্শনাথীদের ভিড়। খামারি ও কৃষক আলিমুদ্দিন বলেন, শান্তু বাবুকে মোটাতাজাকরণে কোনো প্রকার হরমোন ওষুধ, ইনজেকশন ও রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়নি, সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়েই তাকে বড় করা হয়েছে। শান্ত বাবুর খাদ্য তালিকায় প্রতিদিন ১২ থেকে ১৪ কেজি দ্রবাদি রয়েছে। সবুজ ঘাস, খড়, গাছের পাতা, ভুট্রা ভাঙ্গা, বিভিন্ন ভ’ষি, সরিষার খৈল, নালি, ধানের কুড়া, পাঁকা বিভিন্ন ফল ও লবন পানি পরিমাণ মতো থাকে। তার পেছনে প্রতিদিন প্রায় খরচ হয় ৮০০ টাকা। সব মিলে দুই বছর চার মাসে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা খরচ হয়েছে। শান্ত বাবুর দাম প্রত্যাশায় আলিমুদ্দিন জানান, করোনার এই সময়ে বাজার একটু কম যাচ্ছে শুনছি। তবে বাজারে ক্রেতা ও গরুর সরবরাহের ওপর আমার গুরুর দাম নির্ভর করবে। আমি ১২ লাখ টাকা দাম নির্ধারণ করেছি। পুঠিয়া উপজেলার প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন বলেন, শান্ত বাবু নামের এই গরুটি ফ্রিজিয়ান জাতের গরু। গরুটিকে সম্পূর্ণ দেশীয় খাবার খাইয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে লালন-পালন করেছে পরিবারটি। এই জাতের গরু অনেক আগে থেকেই এখন আমাদের দেশেই খামারি ও অনেক কৃষক পালন করে আসছে। আমার জানা মতে, পুঠিয়া উপজেলার সব থেকে বড় গরুটি এখন ‘শান্ত বাবু’।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536