সাতকানিয়ায় মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় এক যুবলীগ নেতাকে হত্যা

সাতকানিয়ায় মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় এক যুবলীগ নেতাকে হত্যা

রিদুয়ানুল হক,স্টাফ রিপোর্টারঃ গত ২২ই জুন (সোমবার) সাতকানিয়ায় মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় যুবলীগ নেতা মোছাদেকুর(৩৬) রহমানকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। তিনি সাতকানিয়া উপজেলার আওতাধীন সাতকানিয়া সদর ইউনিয়নের বারদোনার আদর্শপাড়া এলাকায় মাহবুবুর রহমানের ছেলে। তিনি বারদোনা এলাকায় সামাজিক সংগঠনের ব্যানারে মাদকবিরোধী কার্যক্রম করে আসছিলেন। একইসাথে স্থানীয় যুবলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন তিনি। বিকাল সাড়ে পাঁচটায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাসূত্রে আরো জানা যায়, দু্ই সহোদরকে ছুরিকাঘাত, বড় ভাইয়ের মৃত্যু চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় এই যুবলীগ কর্মীকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়েছে। একই ঘটনায় ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন নিহত মোছাদেকুরের ছোট ভাই ছোট ভাই ফয়সালুর রহমান (৩২)। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। স্থানীয়দের কাছ কথা বলে জানা যায়, সোহেল নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে মোছাদেকুর রহমান মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিতে বলেন। এ নিয়ে সোহেলের রোষানলে পড়েন মোসাদ্দেকুর। এ ঘটনার রেশে আজ সোমবার বিকেলে মোছাদেকুরকে পেয়ে ছুরিকাঘাত করে সোহেল ও তার সহযোগীরা। এ সময় মোছাদেকুরের ছোট ভাই ফয়সালকেও ছুরিকাঘাত করে তারা। পরে স্থানীয়রা মোছাদেকুর ও ফয়সালুরকে উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হওয়ায় আহত দুই ভাইকেই নগরীর চমেক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই কর্তব্যরত চিকিৎসক মোসাদ্দেকুরকে মৃত ঘোষণা করেন। এই বিষয়ে সাতকানিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, সাতকানিয়া সদর ইউনিয়নের বারদোনা এলাকায় ছুরিকাঘাতে মোসাদ্দেকুর রহমান নামে একজন নিহত হয়েছে। চমেক হাসপাতালে ফয়সালুর রহমান নামে আরও একজন ছুরিকাঘাতে আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনার সাথে সোহেল নামে এক মাদক ব্যবসায়ী জড়িত আছে বলে জানতে পেরেছি। সোহলের নামে থানায় মামলা রয়েছে। তাকে এর আগে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। আজকের ঘটনার পর থেকে সে পলাতক রয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

সংবাদ শেয়ার করুন

themesbazartvsite-01713478536